Search

পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকত ও সাগরিকা সমুদ্র সৈকতের সাত সতের

পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকত ও সাগরিকা সমুদ্র সৈকতের সাত সতের

পতেঙ্গা সৈকত

পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকত ও সাগরিকা সমুদ্র সৈকতের সাত সতের জেনে রাখুন কাজে দেবেই

যারা ঘুরাঘুরি করতে ভালবাসেন তাদের জন্য আজ দেশের একটি জনপ্রিয় পর্যটন স্থানের বিষয়ে বিস্তারিত বলার চেষ্টা করব। যারা এই  জায়গায় ভ্রমন করেননি তাদের জন্য কাজে আসবে বলে আমি মনে করি। এই শীতে আপনি এই জায়গা দুটি ঘুরে দেখতে পারেন। এজন্য পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকত ও সাগরিকা সমুদ্র সৈকতের সাত সতের নিয়ে আজ লিখতে বসলাম। দেশের যেকোন স্থান থেকে পৌছে যান চট্রগ্রাম। আপনি চাইলে ট্রেনে বা বাসে অথবা প্লেনে করেও পৌছে যেতে পারেন। ভাল কোন হোটেলে থাকতে হলে আপনাকে অবশ্যই হোটেল সেন্টমার্টিনকে বেছে নিন। এরপর সিদ্ধান্ত নিন আপনি কোন পর্যটন স্থানে যাবেন। পতেঙ্গা নাকি সাগরিকা ।

 

পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকত ও সাগরিকা সমুদ্র সৈকতের সাত সতের

পতেঙ্গা সৈকত

পতেঙ্গা : অপরুপ সৌন্দর্যের মিলন ঘাটি বাংলাদেশের দক্ষিন অন্ঞলের বিজনেস ডোর চট্রগ্রামের আগ্রাবাদ থেকে সিএনজি যোগে যাইতে আপনার সময় লাগবে আধা ঘন্টা ভাড়া লাগবে ১০০ থেকে ১৩০ টাকা। অথবা রিক্সা যোগে আরেকটু বেশি লাগবে। বাসে যাইতে ভাড়া কম লাগবে। জিইসি মোড় থেকে ২০০ টাকা সিএনজিতে লাগতে পারে পতেঙ্গা পৌছাতে। আশে পাশের লোক যারা নিজের শরীরের প্রতি যত্নবান এবং মেদ কমাতে চান তারা অনেকেই এখানেই তাদের শরীর চর্চা করে থাকেন । সকালে সৈকতের হাওয়া অত্যান্ত স্বাস্থ্য উপযোগি। এখানে সকালে গেলে এক প্রকার মজা আর বিকেল থেকে রাত এক মজা পাবেন। তাই দুই বেলায় যাওয়ার চেষ্টা করেন ভাল লাগবে। সকালে গেলে আপনি প্রথমে সৈকতে গিয়েই কথা বলবেন স্পীডবোটওলাদের সাথে। তাদের বলে একটু বেশি টাকা দিয়ে হলেও ( আনুমানিক ৪০০টাকা ) অনেক দুরে দারিয়ে থাকা জাহাজের কাছে নিয়ে যেতে বলবেন। সেখানে যাওয়ার পর জাহাজে যারা আছে তাদের সাথে কথা বলে জাহাজে উঠে পড়েন। এবার ফিল করেন আপনার অনুভূতি। মনে হবে লাখ টাকা দিয়েও আপনি এই মজা কোথাও পাবেন না।

 

পতেঙ্গা সমুদ্র সৈকত ও সাগরিকা সমুদ্র সৈকতের সাত সতের

পতেঙ্গা সৈকত

এসময় এক এক করে জাহাজের প্রত্যেকটি জায়গা আপনি যেতে পারবেন। সংগে ভাল মানের ক্যামেরা নিয়ে নিবেন। টাইটানিক পোজ থেকে শুরু করে সকল পোজে ছবি উঠান। এই ছবিগুলো আপনার সম্পদ বলে মনে হবে পরবর্তীতে। আর হ্যা ভয় পাবার কিছু নেই জাহাজ চলমান না । এগুলো থামিয়ে রাখা। এরকম অনেক জাহাজ এখানে রাখা হয়েছে দেখতে পাবেন। জাহাজে এসময় থাকে শ্রমিক। আপনি যত সময় জাহাজে ব্যায় করবেন তত সময় আপনার আনন্দে চিৎকার করতে ইচ্ছা করবে এবং আপনি তাই করবেন যদি এটা আপনার প্রথম যাত্রা হয়। চিত্রে দেখুন চলে আসার সময়কার চিত্র। অদুরে দেখা যাওয়া জাহাজটাতেই এই স্পীডবোটের যাত্রীরা উঠেছিল।

সর্বশেষ যে ছবিটি দেখতে পাচ্ছেন এটি হলো সূর্য অস্ত যাওয়ার চরম এক মূহুর্ত। আশা করি সুযোগ পেলে আপনারাও এই চরম ভাল লাগাগুলো নিজের করে নিবেন, পরখ করবেন।

 

সাগরিকা সমুদ্র সৈকত

সাগরিকা সমুদ্র সৈকত

সাগরিকা : জিইসি মোড় থেকে সিএনজিতে ১৫০ টাকা ভাড়া নিবে। পৌছে দেবে সাগরিকা সমুদ্র সৈকতে। এটা সেরকম প্রসিদ্ধ কোন সৈকত না তবে এটি এখন ক্রমেই জনপ্রিয় হয়ে উঠছে। এখানে পানির যখন জোয়ার হয় তখন ভাল লাগবে ।মনে করে দেখুন চট্রগ্রাম ক্রিকেট খেলা হলে একদম মাঠ থেকে সমুদ্র দেখায় এটিই সেই সৈকত। সুন্দরবনের মত একটি বন দেখতে পাবেন যেটি আপনার ভাল লাগবে। অনেক কাপল প্রতিদিন এখানে ঘুরতে আসে। পাশের ছবির মতো গাছের শাসমূল দেখতে পাবেন সকল জায়গায়। সম্ভব হলে কেডস পড়ে যাবেন এখানে।

সবাই ভাল থাকবেন এবং দোয়া করি সবাই সফলতার দারপ্রান্তে পৌছে যান– আমিন।

comments




Leave a Reply

Your email address will not be published.